রবিবার ১৪ই জুলাই, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ রাত ১২:৩৫
শিরোনামঃ
Logo বিদ্যুৎস্পৃষ্ট মক্তবের খাদেমের মৃত্যু Logo খেলাধুলা-শরীর চর্চা সকলকে সুস্বাস্থ্যের অধিকারী হবে-প্রধানমন্ত্রী  Logo ঝালকাঠিতে পানিতে ডুবে দুই শিশুর মৃত্যু Logo সুস্বাস্থ্য ও পুষ্টি মেটাতে সঠিক খাদ্যতালিকার খাবার যেমন হওয়া প্রয়োজন Logo বিশেষ অবদান রাখায় ১৫ গুণী শিল্পীকে বিশেষ সম্মাননা Logo নোয়াখালীতে আইপিএসের তারে বিদ্যুৎস্পৃষ্টে ইলেকট্রিক মিস্ত্রির মৃত্যু  Logo প্রকাশ্যে যুবককে ছুরিকাঘাতে হত্যা মামলার প্রধান আসামি গ্রেফতার ২ Logo জমি আছে দাবি করে শতাধিক ফলের গাছ কেটে ফেললো শত্রুরা Logo কুমিল্লার নবাগত পুলিশ সুপার জনাব মোঃ সাইদুল ইসলামের সাথে সাংবাদিকসহ বিভিন্ন ফোরাম ও পেশাজীবি সংগঠনের সঙ্গে মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত Logo আমি পুত্র সন্তানের  বাবা হয়েছি-অভিনেতা চাষি আলম

সিদ্ধিরগন্জ জীতুর ডান্স ক্লাবে রুমাকে হত্যা করা হয়- মা রহিমা বেগম।

nagarsangbad24
  • প্রকাশিত: সেপ্টেম্বর, ২২, ২০২১, ১০:১০ অপরাহ্ণ
  • ২১৩ ০৯ বার দেখা হয়েছে

       
 
  

নগর সংবাদ।।সিদ্ধিরগন্জ জীতুর ডান্স ক্লাবে রুমাকে হত্যা করা হয়- মা রহিমা বেগম।

নারায়ণগঞ্জের সিদ্ধিরগাঞ্জের সিদ্ধিরগঞ্জে রুমা হত্যাকান্ডের ঘটনায় আদালতে মামলা দায়ের করেছে নিহতের মা রহিমা বেগম। গত ২০ সেপ্টেম্বর সোমবার নারায়ণগঞ্জ চীফ জুডিশিয়াল আমলী ক অঞ্চল আদালতে মামলা দায়ের করেন। চীফ জুডিশিয়াল ম্যাজিষ্টেট ফারহানা ফেরদৌস মামলাটি পিটিশন আকারে গ্রহণ করে ঘটনার বিষয়ে কি ব্যাবস্থা গ্রহন করা হয়েছে তা তিন দিনের মধ্যে প্রতিবেদন দাখিল করার আদেশে প্রদান করেন এবং আগামী ২৩ সেপ্টেম্বর বৃহস্পতিবার মামলার পরবর্তী তারিখ ধার্য করেন আদালত।

 

মামলার আরজিতে উল্লেখ করা হয়েছে, গত ১৩ মে সিদ্ধরগঞ্জের নয়া আটি এলাকার আব্দুর রহিম মিয়ার মেয়ে রুমা আক্তার তাহার কর্মস্থলথেকে বাড়িয়ে ফিরে ইফতার করার পর সন্ধ্য অনুমান ৭ ঘটিকায় তাহার মোবাইলে একটি ফোন এলে সে বাহিরে যাওয়ার জন্য প্র্স্তুত হয়। তখন রুমার মা জিজ্ঞেস করে সন্ধ্যা বেলা তুই কোথায় ঢ়াস। তখন রুমা জানায় পাঠানটুলিেত তার পরিচিত আছমা আক্তার টুম্পা নামে এক বড় বোন ফোন করেছে তার ভাইয়ের গায়ে হলুদ। এই বলে বাড়ি থেকে বেরিয়ে ষায়। রাত গভীর হলে সে বাড়িতে ফিরে না এলে তার মা অনেক খুঁজা খুঁজি করে না পেয়ে তার নিকটাত্মীয়দের জানায়।

 

পরের দিন ১৪মে সন্ধ্যা রুমার মোবাইল থেকে তার মায়ের মোবাইলে ফোন করে রুমা কান্নাঝরা কন্ঠে বলে মা ওরা আমাকে শেষ করে ফেলেছে। আমি হয়ত আর বাঁচব না। এ কথা বলতেই একটা মেয়ে কন্ঠ শুনতে পায় সে রুমাকে ধমক দিয়ে বলে তুই কার সাথে কথা বলছিল একথা বলে রুমার মোবাইল ছিনিয়ে নিয়ে বন্ধ করে দেয়। এই ফোনালাপের পর রুমার মা আরও বিচলিত হয়ে পড়েন। তিনি সোনামিয়া মার্কেটে তার এক পরিচিত লোক, তার ভাগিনা সেলিম ও আত্মীয়রা সারা দিন সারা রাত খুঁজাখুঁজি করে বিষয়টি থানাকে জানানোর জন্য রওনা হলে ১৫মে ভোর ৪ঘটিকার সময় রুমার মোবাইল নম্বর থেকে একটা মেয়ে ধমকের গলায় বলে আপনার মেয়ে শারিরীক ভাবে খুভ অসুস্থ। এই বলে আবারও মোবাইল বন্ধ করে দেয়।

 

কিছুক্ষণ পর একই নম্বর থেকে আবারও ফোন করেে সে বলে আপনার মেয়েকে নারায়ণগঞ্জ ভিক্টোরিয়া জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে যাচ্ছি। আপনারা সেখানে চলে আসেন। কিছুক্ষণ পর আবারও ফোন করে রুমার মাকে ফন করে বলে রুমা মারা গেছে। আপনারা নবীগঞ্জ গুদারা ঘাট চলে আসেন। রুমাার মা ঐ মেয়ের সাথে বিনয়ের সাথে কথা বলে যাতে সে মোবাইল ফোন বন্ধ না করে। এভাবে কয়েক বার কথা বলার পর রুমার মা ও তার স্বজনরা ভোর সাড়ে ৪ ঘটিকার সময় নবীগঞ্জ ঘাটে পৌঁছলে ঐ মেয়েকে ফোন দিলে অনেক্ষন পরে ঐ মেয়ে তাহাদের অবস্থান লক্ষ্য করে সামনে আসে এবং একটি অটো দেখিয়ে বলে আপনার মেয়ে জীতুর ড্যান্স ক্লাবে মদ খেয়েছে পরে অসুস্থ হয়ে মারা গেছে।

 

রুমার মা বুঝতে পারে এই মেয়েটাই টুম্পা। রুমার স্বজনরা টুম্পাকে ধরে ফেলে। পরে অটোতে পা ছড়ানো অবস্থা মুখে৷ ওরনা দিয়ে ঘোমটা দেওয়া চোখ খোলা অবস্থা রুমার মরদেহ সহ টুম্পাকে সিদ্ধিরগঞ্জ থানায় নিয়ে যায়। থানা কতৃপক্ষ রুমার মা ও স্বজনদের মুখে সব ঘটনা শুনে টুম্পাকে থানা হাজতে আটক করে। রুমার মরদেহ ময়না তদন্তের পর রুমার মরদেহ মার কাছে বুঝিয়ে দিয়ে থানা কতৃপক্ষ ময়নাতদন্তের রিপোর্ট হাতে পেলে মামলা হবে বলে রুমার মাকে লাশ দাফনের অনুমতি দেয়। এরই মধ্যে লাশ দাফন করে থানায় এলে থানা কতৃপক্ষ মামলা হবে হচ্ছ ঘুরাতে থাকে বিধায় আদালতে মামলা দায়ের করে। রুমার মার অভিযোগ তার মেয়ে রুমাকে শারিরীক ভাবে নির্যাতনকরে ও জোর করে বিষাক্ত মদ খাওয়াইয়া হত্যাকরে।

এ বিভাগের আরও খবর...

পুরাতন খবর

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
১০১১১২১৩১৪
১৫১৬১৭১৮১৯২০২১
২২২৩২৪২৫২৬২৭২৮
২৯৩০৩১  

Archive Calendar

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
১০১১১২১৩১৪
১৫১৬১৭১৮১৯২০২১
২২২৩২৪২৫২৬২৭২৮
২৯৩০৩১  
© ২০২১ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | নগর সংবাদ
Design & Developed BY:
ThemesCell