রবিবার ২৬শে মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ সকাল ৭:৫৮
শিরোনামঃ
Logo প্রাচীন প্রাণায়াম নিয়মিত করার উপকারিতা Logo চট্টগ্রামে তুচ্ছ ঘটনাকে কন্দ্রে করে হামলা, আহত ২ Logo রাজধানীর বাড্ডায় গৃহবধূ ও যুবকের রহস্যজনক মৃত্যু Logo বিশ্বকবি রবীন্দ্রনাথ-জাতীয় কবি নজরুল জন্মবার্ষিকী উদযাপিত  Logo ফতুল্লায় অজ্ঞাত এক নারীর মরদেহ উদ্ধার Logo চৌদ্দগ্রাম থানা ১২৫ বোতল ভারতীয় ফেন্সিডিল ও ১টি কাভার্ডভ্যান গাড়ীসহ ৪ জন মাদক ব্যবসায়ী গ্রেফতার- Logo রূপগঞ্জে গোলাম দস্তগীর গাজী বীর প্রতীক ফুটবল টুর্নামেন্ট শুভ উদ্বোধন Logo র‌্যাব-১০ এর বিশেষ অভিযানে রাজধানীর যাত্রাবাড়ী থানা এলাকা থেকে ডাকাত চক্রের মূলহোতা রাকিবসহ ১১ জনকে গ্রেফতার Logo রাজবাড়ীতে পাঁচদিন ধরে নিখোঁজ মাদরাসাছাত্র,থানায় জিডি Logo ছেলের খারাপ আচরণ সহ্য না করতে পেরে মায়ের আত্মহত্যা

স্বামী হত্যা মামলায় স্ত্রী ও তার পরকীয়া প্রেমিককে মৃত্যুদণ্ড

nagarsangbad24
  • প্রকাশিত: এপ্রিল, ৩০, ২০২৪, ৯:৩১ অপরাহ্ণ
  • ১৯ ০৯ বার দেখা হয়েছে

       
 
  

 

 

 

স্বামী হত্যা মামলায় স্ত্রী ও তার পরকীয়া প্রেমিককে মৃত্যুদণ্ড

গোপালগঞ্জে স্বামী কমলেশ বাড়ৈ (৪৫) হত্যা মামলায় স্ত্রী ও তার পরকীয়া প্রেমিককে মৃত্যুদণ্ড দিয়েছেন আদালত।

মঙ্গলবার (৩০ এপ্রিল) দুপুরে গোপালগঞ্জের অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ আদালতের বিচারক মাকসুদুর রহমান এ রায় ঘোষণা করেন।

 

মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্তরা হলেন- জেলার কোটালীপাড়া উপজেলার তালপুকুরিয়া গ্রামের কমলেশ বাড়ৈ এর স্ত্রী সুবর্ণা বাড়ৈ (৩৮) ও তার পরকীয়া প্রেমিক মন্মথ বাড়ৈ (৪০)।  মন্মথ বাড়ৈ ওই গ্রামের মহেন্দ্রনাথ বাড়ৈ এর ছেলে। মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত দুই আসামিই পলাতক রয়েছেন।

মামলার বিবরণে জানা গেছে, কমলেশ বাড়ৈ কাঠমিস্ত্রির কাজ করে জীবিকা নির্বাহ করতেন। কোনো একসময় তার স্ত্রী সুবর্ণা বাড়ৈ একই গ্রামের মন্মথ বাড়ৈ এর সঙ্গে বিবাহ বহির্ভূত সম্পর্কে জড়িয়ে পড়েন। বিষয়টি স্বামী কমলেশ জানতে পারেন। এ নিয়ে স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে কলহ শুরু হয়। নিজেদের পথ পরিষ্কার করতে সুবর্ণা ও তার পরকীয়া প্রেমিক কমলেশকে হত্যার পরিকল্পনা করেন। বিগত ২০২০ সালের ২ মার্চ দিবাগত গভীর রাতে খাবারের সঙ্গে কমলেশকে নেশা জাতীয় দ্রব্য খাওয়ানো হয়। পরে তাকে হত্যা করে মরদেহ ঘেরের পাড়ে মাটিচাপা দিয়ে রাখা হয়। প্রায় তিন মাস পর ঘেরের পাড় থেকে কমলেশের অর্ধগলিত মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ। এ ঘটনায় কমলেশের ভাই রমেশ বাড়ৈ বাদী হয়ে সুবর্ণা ও মন্মথকে আসামি করে ৩০ মে কোটালীপাড়া থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা কোটালীপাড়া থানার উপ পরিদর্শক (এসআই) মো. আব্দুল করিম তদন্ত শেষে ২০২০ সালের ২৪ অক্টোবর আদালতে দুই আসামির বিরুদ্ধে চার্জশিট দাখিল করেন।

শুনানি ও সাক্ষ্যগ্রহণ শেষে বিচারক সুবর্ণা ও মন্মথকে দোষী সাব্যস্ত করে মৃত্যুদণ্ডের রায় দেন।

রাষ্ট্রপক্ষে মামলাটি পরিচালনা করেন পাবলিক প্রসিকিউটর (পিপি) অ্যাডভোকেট সুভাষ চন্দ্র জয়ধর। বিবাদী পক্ষে আইনজীবী ছিলেন এইচএম মহিউদ্দিন।

পিপি অ্যাড. সুভাষ চন্দ্র জয়ধর বলেন, মামলা দায়েরের পর দুই আসামিকে পুলিশ গ্রেপ্তার করে। পরে তারা জামিনে বেরিয়ে আর আদালতে হাজির হননি। এ রায় ঘোষণার সময়ও আসামিরা আদালতে অনুপস্থিত ছিলেন।

এ বিভাগের আরও খবর...
© ২০২১ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | নগর সংবাদ
Design & Developed BY:
ThemesCell